ঢাকা ০৬:১১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :
Logo জাহাঙ্গীর হোসেন পাপ্পু’র কবিতা ‘ হে একুশে ফেব্রুয়ারি’ Logo মরণোত্তর একুশে পদক পেলেন গৌরীপুরের বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম হাতেম আলী মিয়া Logo প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমান’র ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী আজ Logo ময়মনসিংহ র‍্যাবের অভিযানে ৫০ জন চাঁদাবাজ গ্রেফতার Logo গৌরীপুরে ডিজিটাল চা বিক্রেতার ব্যতিক্রমী আয়োজনে জাতীয় গ্রন্থাগার দিবস পালন Logo গৌরীপুরে ২ কেজি গাঁজাসহ ব্যবসায়ী আটক Logo সোহাগী ইউনিয়ন উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যক্ষ হারুন অল রশিদ আর নেই Logo গৌরীপুর উপজেলা জাতীয় পার্টির উদ্যোগে কম্বল বিতরণ Logo বি. আর. শোয়েব’র কবিতা ”তুমি চাইলেই সব হতো” Logo চা বিক্রেতা হারুন পেলেন ‘প্রিয় বাংলা পাঠাগার’ পুরস্কার

গৌরীপুরে গভীর রাতের আগুনে পুড়লো একাধিক বসত ঘরসহ ২ গরু

মোখলেছুর রহমান
  • আপডেট সময় : ০৩:৫১:৩১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ ডিসেম্বর ২০২৩ ২৬ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

গৌরীপুর প্রতিদিন
ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার ডৌহাখলা ইউনিয়নের চুড়ালী গ্রামে বৃহস্পতিবার রাতে আগুনে পুড়ে গেছে নয়টি ঘর ও দুইটি গরু। ধারণা করা হচ্ছে গোয়াল ঘর থেকেই আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। আগুনে ক্ষতিগ্রস্তরা হলেন- উল্লেখিত গ্রামের আবুল কাসেম ও তার ছোট ভাই আব্দুস ছালাম। এছাড়াও আগুনের লেলিহান শিখা থেকে বাঁচতে ভাঙতে হয়েছে তাদের ভাতিজা সারোয়ার ও ফারুকের বসত ও গোয়াল ঘর। খরব পেয়ে গৌরীপুর ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে তার আগেই পুড়ে সব শেষ হয়ে গেছে বলে জানান ভুক্তভোগীরা।

আবুল কাসেম জানান- রাত ১১টার দিকে মানুষের চিৎকার চেচামেচি শুনে তাদের ঘুম ভাঙ্গে। দেখেন ধোঁয়ায় ঘর ভরে আছে ও চালে আগুন জ্বলছে। জীবন বাঁচাতে স্ত্রীকে নিয়ে তিনি ঘর থেকে বের হয়ে আসেন। কাপড়চোপড়, ধান-চাল কিছুই তাদের অবশিষ্ট নেই। প্রতিবেশিরা এসে গোয়াল ঘরের থাকা ৬টি গরুর মধ্যে চারটিকে বাঁচাতে পেরেছেন, একটি গর্ভবতী গাভীসহ দুইটি গরু পুড়ে গেছে।

প্রতিবেশি সাইদুল ইসলাম আজকের পত্রিকাকে জানান- তিনি ঘুমাচ্ছিলেন, হঠাৎ মানুষের আগুন আগুন চিৎকার শুনে তার ঘুম ভাঙ্গে। ঘর থেকে বের হয়ে দেখেন আবুল কাসেমের ঘরে আগুন জ্বলছে। তিনি দৌড়ে এসে ঘোয়াল ঘর থেকে গরুগুলো বের করেন। দুইটি গরুর শরীরে আগেই আগুন ধরে গেছে তাই সেগুলো বের করতে পারেননি।

গৌরীপুর ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ মোঃ শাহজাদা বলেন ৯৯৯-এ কল পেয়ে তিনি তাৎক্ষণিক দুইটি ইউনিট নিয়ে বের হন। কিন্তু লোকেশন ট্র্যাকিং করতে সময় লাগে। এছাড়া সরু সড়ক হওয়ার কারণে বড় গাড়িটি অনেক দুর রেখে যেতে হয়েছে, যে কারণে ঘটনাস্থলে পৌঁছুতে পৌঁছুতে ঘরগুলো পুড়ে যায়। দুইটি টিনের বসত ঘর, দুইটি রান্না ঘর ও দুইটি গোয়াল ঘর, তিনটি ছোট ঘর ও দুইটি গাভী আগুনে পুড়ে গেছে। এতে প্রাথমিকভাবে ৮ লাখ টাকা ক্ষয়ক্ষতি নির্ধারণ করা হয়েছে।
খবর পেয়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। গৌরীপুর উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক সোমনাথ সাহা ক্ষতিগ্রস্ত ৩ পরিবারকে ১০ হাজার করে নগদ অর্থ দিয়ে সহযোগিতা করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

গৌরীপুরে গভীর রাতের আগুনে পুড়লো একাধিক বসত ঘরসহ ২ গরু

আপডেট সময় : ০৩:৫১:৩১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ ডিসেম্বর ২০২৩

গৌরীপুর প্রতিদিন
ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার ডৌহাখলা ইউনিয়নের চুড়ালী গ্রামে বৃহস্পতিবার রাতে আগুনে পুড়ে গেছে নয়টি ঘর ও দুইটি গরু। ধারণা করা হচ্ছে গোয়াল ঘর থেকেই আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। আগুনে ক্ষতিগ্রস্তরা হলেন- উল্লেখিত গ্রামের আবুল কাসেম ও তার ছোট ভাই আব্দুস ছালাম। এছাড়াও আগুনের লেলিহান শিখা থেকে বাঁচতে ভাঙতে হয়েছে তাদের ভাতিজা সারোয়ার ও ফারুকের বসত ও গোয়াল ঘর। খরব পেয়ে গৌরীপুর ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে তার আগেই পুড়ে সব শেষ হয়ে গেছে বলে জানান ভুক্তভোগীরা।

আবুল কাসেম জানান- রাত ১১টার দিকে মানুষের চিৎকার চেচামেচি শুনে তাদের ঘুম ভাঙ্গে। দেখেন ধোঁয়ায় ঘর ভরে আছে ও চালে আগুন জ্বলছে। জীবন বাঁচাতে স্ত্রীকে নিয়ে তিনি ঘর থেকে বের হয়ে আসেন। কাপড়চোপড়, ধান-চাল কিছুই তাদের অবশিষ্ট নেই। প্রতিবেশিরা এসে গোয়াল ঘরের থাকা ৬টি গরুর মধ্যে চারটিকে বাঁচাতে পেরেছেন, একটি গর্ভবতী গাভীসহ দুইটি গরু পুড়ে গেছে।

প্রতিবেশি সাইদুল ইসলাম আজকের পত্রিকাকে জানান- তিনি ঘুমাচ্ছিলেন, হঠাৎ মানুষের আগুন আগুন চিৎকার শুনে তার ঘুম ভাঙ্গে। ঘর থেকে বের হয়ে দেখেন আবুল কাসেমের ঘরে আগুন জ্বলছে। তিনি দৌড়ে এসে ঘোয়াল ঘর থেকে গরুগুলো বের করেন। দুইটি গরুর শরীরে আগেই আগুন ধরে গেছে তাই সেগুলো বের করতে পারেননি।

গৌরীপুর ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ মোঃ শাহজাদা বলেন ৯৯৯-এ কল পেয়ে তিনি তাৎক্ষণিক দুইটি ইউনিট নিয়ে বের হন। কিন্তু লোকেশন ট্র্যাকিং করতে সময় লাগে। এছাড়া সরু সড়ক হওয়ার কারণে বড় গাড়িটি অনেক দুর রেখে যেতে হয়েছে, যে কারণে ঘটনাস্থলে পৌঁছুতে পৌঁছুতে ঘরগুলো পুড়ে যায়। দুইটি টিনের বসত ঘর, দুইটি রান্না ঘর ও দুইটি গোয়াল ঘর, তিনটি ছোট ঘর ও দুইটি গাভী আগুনে পুড়ে গেছে। এতে প্রাথমিকভাবে ৮ লাখ টাকা ক্ষয়ক্ষতি নির্ধারণ করা হয়েছে।
খবর পেয়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। গৌরীপুর উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক সোমনাথ সাহা ক্ষতিগ্রস্ত ৩ পরিবারকে ১০ হাজার করে নগদ অর্থ দিয়ে সহযোগিতা করেন।